বাধা দিলেন সচিব, মন্ত্রী দিলেন ধমক

আপডেট: 06:28:26 01/08/2019



img

সুবর্ণভূমি ডেস্ক : ডেঙ্গু পরিস্থিতি নিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেকের পূর্ব নির্ধারিত সংবাদ সম্মেলন স্থগিত করা হয়। এরপরও মন্ত্রীর সঙ্গে সচিবালয়ে কথা বলার চেষ্টা করেন সাংবাদিকরা। কিন্তু সাংবাদিকদের বাধা দেওয়ার চেষ্টা করেন স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব আসাদুল ইসলাম। অনেকক্ষণ চেষ্টার পর একটি বৈঠকের ফাঁকে সাংবাদিকদের ভেতরে আসার সুযোগ দেন মন্ত্রী। বক্তব্য শেষে সাংবাদিকরা তার বিদেশ সফর নিয়ে প্রশ্ন করতে চাইলে ধমক দিয়ে থামিয়ে দেন মন্ত্রী।
আজ বৃহস্পতিবার (১ আগস্ট) দুপুর ২টায় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে ডেঙ্গু পরিস্থিতি নিয়ে মন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন হওয়ার কথা ছিল। তবে সকালে এই সংবাদ সম্মেলন স্থগিত করা হয়। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র তথ্য কর্মকর্তা মাঈনুল ইসলাম প্রধান জানান, ‘স্বাস্থ্যমন্ত্রীর প্রেস কনফারেন্সটি স্থগিত করা হয়েছে। মন্ত্রী রাজধানীর মিটফোর্ড হাসপাতাল থেকে বের হয়ে আরও কয়েকটি হাসপাতাল পরিদর্শন করবেন। তারপর সংবাদ সম্মেলনের তারিখ জানানো হবে।’
এরপর দুপুরের দিকে সচিবালয়ে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে ডেঙ্গু পরিস্থিতি নিয়ে বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে বৈঠকে বসেন মন্ত্রী। ঢাকার দুই মেয়র, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এসডিজি বিষয়ক প্রধান সমন্বয়ক আবুল কালাম আজাদ, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত সংসদীয় কমিটির সদস্য ডা. মোস্তফা কামাল মহিউদ্দিন, বাংলাদেশ মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশনের (বিএমও) মহাসচিব ইকবাল আরসালান, সংশ্লিষ্ট কয়েকটি মন্ত্রণালয়ের সচিবসহ উচ্চপর্যায়ের কর্মকর্তারা সেখানে উপস্থিত ছিলেন।
বৈঠকের এক ফাঁকে সাংবাদিকদের চাপের মুখে তাদের সঙ্গে কথা বলেন মন্ত্রী। তিনি ডেঙ্গু পরিস্থিতি নিয়ে ব্রিফ করেন। তবে তার বক্তব্য দেওয়া শেষ হলে এক সাংবাদিক যখন তার বিদেশ সফর নিয়ে প্রশ্ন করতে চান, তখন মন্ত্রী ধমক দিয়ে তাকে থামিয়ে দিয়ে অন্য প্রসঙ্গে কথা বলতে বলেন।
বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) নীতিমালা অনুযায়ী দেশের ডেঙ্গু পরিস্থিতি মহামারি ঘোষণা করা যায় কিনা, সাংবাদিকদের এই প্রশ্নের জবাবে সচিব আসাদুল ইসলাম মন্ত্রীর ফ্লোর কেড়ে নেন। তিনি বলেন, ‘এটি রাজনৈতিক বিষয় নয়, টেকনিক্যাল বিষয়। এটা মন্ত্রীর জবাব দেওয়ার বিষয় না। এটি জটিল বিষয়।’
প্রসঙ্গত, দেশজুড়ে ডেঙ্গু পরিস্থিতির অবনতির মধ্যেই ব্যক্তিগত ভ্রমণে গত ২৭ জুলাই মালয়েশিয়া যান স্বাস্থ্যমন্ত্রী। ৪ আগস্ট তার দেশে ফেরার কথা ছিল। তবে দেশে ডেঙ্গুর প্রাদুর্ভাবের মধ্যে বিদেশ ভ্রমণের কারণে সমালোচনার মুখে পড়ায় বুধবার রাত ১টার দিকে তিনি দেশে ফেরেন। বৃহস্পতিবার সকালে মিটফোর্ড হাসপাতালে ডেঙ্গু রোগীদের জন্য একশ’ শয্যার একটি নতুন ওয়ার্ড উদ্বোধন করেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী। উদ্বোধনের পর হাসপাতাল থেকে বের হলে সাংবাদিকরা স্বাস্থ্যমন্ত্রীকে ঘিরে ধরেন। তবে এ সময় সংবাদিকদের সঙ্গে কোনও কথা না বলেই স্বাস্থ্যমন্ত্রী হাসপাতাল থেকে বের হয়ে যান। বাংলা ট্রিবিউন

আরও পড়ুন