বহু মানুষ এখনো পলাতক, ঈদ-আনন্দ নেই বাড়িতে

আপডেট: 02:43:02 09/07/2016



img

স্টাফ রিপোর্টার : শার্শার শ’ শ' মানুষ এবারো স্বজনদের সঙ্গে উৎসব উদযাপন করতে পারছে না। এরা সবাই বিরোধী দলের নেতাকর্মী-সমর্থক। আছেন অন্যায়ের প্রতিবাদকারী কিছু মানুষও। ক্ষমতাসীন দল আশ্রিত সন্ত্রাসীদের কারণে এরা দীর্ঘদিন ধরে ঘর-পরিবার-পরিজনছাড়া।
ইসলাম ধর্মাবলম্বীদের অন্যতম প্রধান উৎসব ঈদুল ফিতর। এই সময়ে সব মুসলিম তাদের পরিবার-পরিজনের সঙ্গে উৎসব করতে ব্যাকুল থাকেন। রাজধানী ছাড়াও দূর-দূরান্ত থেকে ছুটে আসেন মানুষ নাড়ির টানে।
রাজনৈতিক সূত্রগুলো জানায়, আওয়ামী লীগ রাষ্ট্রক্ষমতায় আসার পর বিএনপি ও জামায়াতে ইসলামীর হাজার হাজার নেতা-কর্মী-সমর্থক শাসক দলের সন্ত্রাসীদের অত্যাচারে এলাকা ছাড়তে বাধ্য হন। এদের অনেকেই নানাভাবে ‘ম্যানেজ’ করে এলাকায় ফিরে এসেছেন। কিন্তু এখনো উপজেলার কয়েকটি গ্রামের কয়েকশ’ লোক এলাকায় ফিরতে পারেননি। ‘এলাকায় ফিরলে তাদের খুন করা হবে’ বলে হুমকি জারি রয়েছে।
সূত্র জানায়, বাড়িঘরছাড়া ব্যক্তিদের মধ্যে রয়েছেন জনপ্রতিনিধি, শিক্ষক, বনেদি ঘরের ভদ্র সন্তান, কৃষক, দিনমজুর, ভ্যানচালক, মাদরাসা ও কলেজছাত্র। উপজেলার সাদীপুর, বাহাদুরপুর, গোগা, বাগআঁচড়া, জিরেনগাছা, কন্যাদহ, রামপুর, মাটিকুমড়া, ধান্যখোলা, শার্শা, নাভারন, জামতলা, সাড়াতলা গোকর্ণ, শিকারপুর, ডিহি, বাদেদুর্গাপুর, শালকোণা, টেংরালী, বেনাপোল, উলাশী গ্রামে এদের বাড়ি।
তবে এসব বিষয়ে কথা বলতে চাইলে বেশ কয়েকজন রাজনৈতিক নেতা এড়িয়ে যান।

আরও পড়ুন