প্রবীর মিত্র এখন

আপডেট: 01:54:21 06/01/2018



img

কামরুজ্জামান মিলু : বাংলা চলচ্চিত্রের দাপুটে  অভিনেতা প্রবীর মিত্র। এ পর্যন্ত তিনশ’র বেশি চলচ্চিত্র মুক্তি পেয়েছে তার। তবে এখন খুবই অস্বস্তিকর অবস্থায় ঘরে বসে দিন কাটছে তার। অনেকদিন ধরে হাঁটুতে ব্যথার কারণে ঘর থেকে বাইরে যেতে পারেন না তিনি।
তাহলে কীভাবে সময় কাটছে তার? এ প্রশ্নের উত্তরে প্রবীর মিত্র বলেন, 'টিভি দেখে ও খবরের কাগজ পড়ে কাটছে আমার সময়। মাঝে মাঝে মনে হয় আমি বড় একা। একটা সময় প্রচুর কাজ করেছি। আর এখন কাজ ছেড়ে বাসায় একা একা বসে থাকাটা সত্যিই বড় কষ্টকর। বলতে গেলে শারীরিকভাবে অসুস্থ থাকার চেয়ে মানসিকভাবে কষ্ট পাই আমি। অনেক দিন এফডিসিতেও যাওয়া হয় না।'
পুরনো ঢাকায় বেড়ে ওঠা প্রবীর মিত্র স্কুলজীবন থেকেই নাট্যচর্চার সঙ্গে যুক্ত হন। তার অভিনীত প্রথম নাটক ছিল রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ‘ডাকঘর’। এরপর ‘লালকুঠি’ নাট্যদলে যোগ  দেন। ১৯৭১ সালে এইচ আকবর পরিচালিত ‘জলছবি’ চলচ্চিত্রে তার প্রথম অভিনয়। এরপর তিনশ’র বেশি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন তিনি। মহিউদ্দীনের ‘বড় ভালো লোক ছিল’ চলচ্চিত্রে অনবদ্য অভিনয়ের স্বীকৃতি হিসেবে ১৯৮২ সালে  সেরা পার্শ্ব অভিনেতা হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পান তিনি।
সামনে তার অভিনীত নতুন কোনো ছবি মুক্তি পাবে কি-না জানতে চাইলে তিনি বলেন, ''সবশেষ ‘বৃদ্ধাশ্রম’ নামের একটি ছবিতে কাজ করেছি। এর গল্প নিয়ে গবেষণা হয় তিন বছর। তারপর ২০১৫-১৬তে এটি পায় সরকারি অনুদান। সরকারি অনুদানের এ চলচ্চিত্রটি পরিচালনা করেছেন স্বপন চৌধুরী। সামনে এটি মুক্তি পাবে।''
বর্তমানে প্রতি বছরই অনেক চলচ্চিত্র নির্মাণ হচ্ছে, তারপরও বেশির ভাগ চলচ্চিত্রই সফলতা পাচ্ছে না। এর কারণ হিসেবে প্রবীর মিত্র বলেন, 'আগে একটা চলচ্চিত্র নির্মাণের আগে অনেকবার হোমওয়ার্ক হতো। চলচ্চিত্রের কাহিনি নিয়ে গবেষণা হতো। এরপর সংলাপ, চিত্রনাট্য সাজাতেও সময় লাগতো। এখন তো কিছুই তেমন হয় না। কাজ করো, তাড়াহুড়া করে শেষ করে টাকা নিয়ে যাও- এইতো হচ্ছে এখন। তাই দর্শকও চলচ্চিত্রবিমুখ হয়ে পড়ছে।'
নিজের লম্বা এই ক্যারিয়ারে কোনো আফসোস বা ক্ষোভ আছে কি-না জানতে চাইলে প্রবীর মিত্র বলেন, 'যা পেয়েছি অনেক পেয়েছি। মানুষের অনেক ভালোবাসা পেয়েছি। তাই আমি মনে করি, চলচ্চিত্রের ক্যারিয়ার নিয়ে কোনো আফসোস নেই আমার।'
সূত্র : মানবজমিন