পরকীয়ার কারণে জুটমিল শ্রমিককে হত্যা!

আপডেট: 10:43:27 20/05/2019



img

স্টাফ রিপোর্টার : দুর্বৃত্তদের ছুরিকাঘাতে শহিদ কাজী (২৮) নামে একজন পাটকল শ্রমিক খুন হয়েছেন। স্থানীয়রা বলছেন, মিলশ্রমিক এক নারীর সঙ্গে পরকীয়ার কারণে এ হত্যাকাণ্ড। জড়িত সন্দেহে পুলিশ এক যুবককে আটক করেছে।
আজ সোমবার বেলা আড়াইটার দিকে যশোর সদরের বাহাদুরপুর পার্ক এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।
আফনান জুট মিলের শ্রমিক শাহিন হাসান জানান, আজ দুপুর আড়াইটার দিকে মিলের প্রথম শিফটের কাজ শেষ হয়। লেবার সর্দার শহিদ কাজী ও তিনি মিলের পাশে একটি চায়ের দোকানে যান চা খেতে। ওইসময় হঠাৎ করে তিন-চার যুবক এসে একজন শহিদের জামার কলার ধরে গালাগাল করতে থাকে। এরপর দুজনের কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে দুজন তার দু’হাত ধরে এবং আরেকজন ছুরি বের করে হাতে ও পিঠের বিভিন্ন স্থানে এলোপাতাড়ি আঘাত করতে থাকে।
শাহিন বলেন, আমাদের চিৎকারে লোকজন ছুটে এলে অন্যরা পালিয়ে যায় এবং একজন পাকড়াও হয়।
ঠেকাতে গিয়ে তিনিও মারধরের শিকার হন বলে সাংবাদিকদের জানিয়েছেন।
পরে গুরুতর অবস্থায় স্থানীয় লোকজন শহিদকে উদ্ধার করে যশোর জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যায়।
হাসপাতালের জরুরি বিভাগের ডাক্তার শফিউল্লাহ সবুজ বলেন, অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে শহিদের মৃত্যু হয়েছে।
এদিকে, স্থানীয়রা জানায়, দুপুরে উপশহর সারথী মিল এলাকার আমিচার ওরফে রমজান, মেহেদি হাসান টপি, জিয়ারুল ও আবু চায়ের দোকানের সামনে যায়। এরপর আমিচার মিলের কর্মচারী শহিদকে ছুরিকাঘাত করতে থাকে। লোকজন এগিয়ে গেলে অন্যরা পালিয়ে যায় এবং টপিকে পাকড়াও করা হয়।
স্থানীয়রা জানায়, আমিচার ওরফে রমজানের স্ত্রী জুলেখার সঙ্গে শহিদ কাজীর প্রেমজ সম্পর্ক রয়েছে।
এ কারণে এই হত্যাকাণ্ড ঘটতে পারে বলে স্থানীয়দের ধারণা।
যশোর কোতোয়ালি থানার ওসি অপূর্ব হাসান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, পুলিশ স্থানীয়দের সহায়তায় ঘটনাস্থল থেকে মেহেদি হাসান টপি (২৬) নামে এক যুবককে আটক করা হয়েছে।
নিহত শহীদ কাজী মাগুরা সদরের হাজরাপুর গ্রামের লোকমান কাজীর ছেলে।

আরও পড়ুন