ডাক্তার হত্যা : জাসদ অফিস ভাংচুর, নেতার বাড়ি হামলা

আপডেট: 01:56:28 12/01/2017



img
img

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি : মিরপুরে গ্রাম্য ডাক্তার লুৎফর রহমান সাবুকে কুপিয়ে হত্যার প্রতিবাদে আওয়ামী লীগের বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা আমবাড়ীয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও জাসদনেতা মশিউর রহমান মিলনের বাড়িতে আগুন দিয়েছে। তারা জাসদ অফিসে হামলা ও ভাংচুরও করেছে।
উপজেলার আমবাড়িয়ায় বুধবার দিনদুপুরে সাবেক কৃষকদল নেতা ও সদস্য আওয়ামী লীগে যোগদানকারী সাবু ডাক্তারকে কুপিয়ে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা।
প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ জানায়, বুধবার বেলা দেড়টায় আমবাড়ীয়া এলাকায় নিজ বাড়ি থেকে মোটরসাইকেলযোগে পাশের চুয়াডাঙ্গা জেলার আলডাঙ্গায় যাওয়ার পথে আমবাড়ীয়া গোরস্থানের কাছে ওত পেতে থাকা দুর্বৃত্তরা তাকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে হত্যা করে ফেলে রেখে যায়।
মিরপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কামারুল আরেফীন জানান, সাবু ডাক্তার বিএনপি থেকে আওয়ামী লীগে যোগদান দিয়েছিলেন। তিনি ছিলেন আওয়ামী লীগের নিবেদিতপ্রাণ। সাবুকে জাসদের নেতাকর্মীরা নৃশংসভাবে হত্যা করেছে বলেও দাবি করেন তিনি।
তবে মিরপুর উপজেলা জাসদের সাধারণ সম্পাদক আহম্মদ আলী দাবি করেছেন, সাবু ডাক্তার হত্যাকাণ্ড একটি বিছিন্ন ঘটনা। এই হত্যার সঙ্গে জাসদের কোনো নেতাকর্মী জড়িত নয়।
তিনি বলেন, ‘এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা জাসদ নেতা ও আমবাড়ীয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মশিউর রহমান মিলনের বাড়িতে অগ্নিসংযোগ করেছে। তারা মিরপুর উপজেলা জাসদ অফিস ভাংচুর ও দুটি মোটরসাইকেল আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দিয়েছে।’
কুষ্টিয়ার পুলিশ সুপার প্রলয় চিসিম এ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, তাৎক্ষণিকভাবে হত্যাকাণ্ডের কারণ উদ্ঘাটন করা না গেলেও ব্যক্তিগত কোনো বিরোধের কারণে এ ঘটনা ঘটতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। হত্যাকাণ্ডের কারণ অনুসন্ধান ও হত্যাকারীদের গ্রেফতারে পুলিশি অভিযান চলছে।
এদিকে, এ হত্যাকাণ্ডের পর এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। এলাকায় পুলিশ টহল জোরদার করা হয়েছে। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।
নিহত সাবু ডাক্তার মৃত আব্দুল আজিজ মিয়ার ছেলে। সম্প্রতি তিনি বিএনপি থেকে আওয়ামী লীগে যোগ দেন।